লঞ্চের কোনো ত্রুটি নয় মাস্টারের ভুলে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। বিস্তারিত পড়ুন ভিতরে  

0
29

বুড়িগঙ্গায় ‘এমএল মনিং বার্ড’কে ধাক্কা দিয়ে ডুবিয়ে দেয়ার সময় ঘা’তক লঞ্চ ‘ময়ূর-২’ মূল মাস্টার নয় একজন শিক্ষানবিশ চালাচ্ছিলেন বলে অ’ভিযোগ উঠেছে। লঞ্চের কোনো ত্রুটি নয় মাস্টারের ভুলে এই দুর্ঘ’টনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট কর্মক’র্তারা। গতকাল সোমবার (২৯ জুন) সকালে ঢাকা-চাঁদপুর রুটের ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় কমপক্ষে ৫০ যাত্রী নিয়ে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ রুটের ম’র্নিং বার্ড লঞ্চটি সদরঘাটের কাছে শ্যামবাজারের দিকে ডুবে যায়। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৩২ জনের লা’শ ও ২ জনকে জীবিত উ’দ্ধার করা হয়েছে। ডুবে যাওয়া লঞ্চটি এখনও উ’দ্ধার করা যায়নি। উ’দ্ধার কার্যক্রম এখনও চলছে।

ময়ূর-২ লঞ্চটি জ’ব্দ করা হলেও মাস্টার পলাতক রয়েছেন।নৌপরিবহন অধিদফতরের চিফ ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড শিপ সার্ভেয়ার মো. মনজুরুল কবীর বলেন, ‘আমি গতকাল দুর্ঘ’টনা স্থলে গিয়েছিলাম। সিসি টিভির একটা ফুটেজও দেখেছি। যখন কোন দুর্ঘ’টনা ঘটে আম’রা তাৎক্ষণিকভাবে অ্যানালাইসিস করার চেষ্টা করি? এটি কী’ভাবে ঘটল? প্রাথমিকভাবে দেখতে চাইলাম, ডুবে যাওয়া লঞ্চের সার্ভে ও রেজিস্ট্রেশন ঠিক ছিল কিনা। এ দিক দিয়ে আম’রা কোন সমস্যা পাইনি। সব ঠিক ছিল।’ তিনি বলেন, ‘একটি দুর্ঘ’টনার পেছনে অসংখ্য কারণ থাকতে পারে। বৈরি আবহাওয়া হতে পারে, নির্মাণ ত্রুটি হতে পারে, ইকুইপমেন্ট ফেইলিওর হতে পারে। ত’দন্তে দুর্ঘ’টনার সুনির্দিষ্ট বিষয়টি উঠে আসে।’

মনজুরুল কবীর বলেন, গতকালের দুর্ঘ’টনার ক্ষেত্রে আমাদের প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, এই দুর্ঘ’টনায় উপরের কোনো কারণই কাজ করেনি। আপত দৃষ্টিতে মনে হয়েছে ওখানে (ময়ূর-২ লঞ্চ) মাস্টার ও অন্যান্য যারা কাজ করেছেন তাদের ‘হিউম্যান ফেইলিওর’। দুর্ঘ’টনার অবস্থায় ‘সিচুয়েশনাল অ্যাওয়ারনেস’ ওই পার্টিকুলার পরিস্থিতিতে সে তার দায়িত্বটা হ্যান্ডেল করতে পারেনি, আমা’র কাছে এটা মনে হয়েছে।তিনি বলেন, ‘দুর্ঘ’টনার সময় ময়ূরের মূল মাস্টার নয় একজন শিক্ষানবিশ মাস্টার চালাচ্ছিলেন বলে আম’রা শুনেছি। আমাদের পক্ষে এই মুহূর্তে এটি সুনির্দিষ্ট করে বলা মুশকিল, তবে ত’দন্তে হয়তো পুরো বিষয়টি উঠে আসবে।’

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া নদীর পাশের একটি সিসি ক্যামেরায় ভিডিওতে দেখা গেছে, বিশাল আকৃতির ময়ূর-২ ও অ’পেক্ষাকৃত অনেক ছোট মনিং বার্ড পাশাপাশি দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। খানিকটা এগিয়েই ময়ূর-২ ‘ম’র্নিং বার্ড’ এর ওপর উঠে যায় এবং উল্টে গিয়ে তলিয়ে যায় যাত্রী বোঝাই লঞ্চটি।সেই ভিডিও দেখে নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘যেভাবে ঘটনা ঘটেছে, আমা’র মনে হয়েছে এটা পরিক’ল্পিত। এটা কোনো দুর্ঘ’টনা নয়, হ’ত্যাকা’ণ্ড।’এই দুর্ঘ’টনায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ৭ সদস্য বিশিষ্ট ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) চার সদস্য বিশিষ্ট ত’দন্ত কমিটি গঠন করেছে।