পানির উপর উঠে এসে শুনি ১৩ ঘণ্টা, আমি তো মনে করেছি ১০ মিনিট। বিস্তারিত ভিতরে  

0
88

পানির নিচে ১৩ ঘণ্টাই জ্ঞান ছিল বলে জানিয়েছেন সদরঘাটের শ্যামবাজারে লঞ্চডুবি থেকে অলৌকিকভাবে উ’দ্ধার হওয়া যুবক সুমন ব্যাপারী।মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে মিটফোর্ড হাসপাতা’লের করিডরে গণমাধ্যমের কাছে বেঁচে ফেরার ঘটনা তুলে ধরেন তিনি।উ’দ্ধার হওয়ার পর থেকে সুমন ব্যাপারী সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার শারীরিক অবস্থা এখন বেশ ভালো। ১৩ ঘণ্টা পুরো সময়টাতেই প্রার্থনা করে কাটিয়েছেন বলে জানান তিনি।সুমন ব্যপারী জানান, প্রথমে দিকে পেটে একটু পানি প্রবেশ করলেও বাকি পুরো সময়টা নিরাপদে ছিলেন। এসময় লঞ্চডুবির পুরো ঘটনা বর্ণনা করেন।

তিনি বলেন, আমি তো মনে করেছি ১০ মিনিটি হয় আ’ট’কে আছি! পানির উপর উঠে এসে শুনি ১৩ ঘণ্টা হয়েছে। আল্লাহপাক যা চায় তাই হয়। কারণ আমি তো ওইখানে মৃ’ত্যুবরণ করতে পারতাম। পানির নিচে থাকা অবস্থায় পানি খেয়েছিলাম। কিন্তু প্রস্রাব করার পর পেট ক্লিয়ার হয়ে গেছে। এরপর উপরে উঠে আসি!সুমন ব্যাপারীর ভাষ্যমতে, ঘটনার দিন মুন্সিগঞ্জের কাটপট্টি লঞ্চঘাট থেকে লঞ্চে উঠিছিলেন তিনি। নিজেকে একজন ক্ষুদ্র ফল ব্যবসায়ী বলে পরিচয় দেন তিনি। তাকে কখন হাসপাতা’লে থেকে ছাড়পত্র দেয়া হবে এ বিষয়ে এখনই কিছু বলতে চাননি হাসপাতা’লের পরিচালক।

(২৯ জুন) সকালে রাজধানীর শ্যামবাজারের কাছে বুড়িগঙ্গা নদীতে ময়ূর-২ লঞ্চের ধাক্কায় এমএল ম’র্নিং বার্ড নামের লঞ্চটি ডুবে যায়। এঘটনায় ৩২ জনের ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়েছে। তারা সবাই মুন্সীগঞ্জের। এছাড়া লঞ্চটি ডুবে যাওয়ার প্রায় ১৩ ঘণ্টার সোমবার রাত ১১টার দিকে সুমন ব্যাপারী উ’দ্ধার হন।এ ঘটনায় ৭ সদস্যের ত’দন্ত কমিটি গঠন করেছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। এছাড়া, মৃ’ত প্রত্যেকের পরিবারকে দেড় লাখ টাকা ও তাৎক্ষণিক ভাবে দাফন করা জন্য ১০ হাজার টাকা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী।