রাস্তায় স্ত্রীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় সঙ্গে সঙ্গে ছুরি মে’রে হ’ত্যা। বিস্তারিত ভেতরে

স্ত্রী’কে উ’ত্ত্যক্ত করায় যশোরের বাঘারপাড়া উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে প্রকাশ্যে ছু’রিকাঘাতে মাইক্রোবাস চালককে খু’ন করেছেন এক স্বামী। রোববার (২৮ জুন) দিন-দুপুরে এ হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটে।নি’হত মাইক্রোবাস চালক রিপন হোসেন (৩০) বাঘারপাড়ার মহিরন গ্রামের প্রশিকার মোড় এলাকার মনিরুল ইস’লামের ছে’লে। হ’ত্যাকা’ণ্ডে জ’ড়িত বরকত উল্লাহ খান (২৮) নামে ওই স্বামীকে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ। আ’ট’ক বরকত যশোর শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া এলাকার মাহফুজুর রহমানের ছে’লে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার দুপুরে বরকত উল্লাহ ও তার স্ত্রী’ পিংকি খাতুন বাঘারপাড়া উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থান করছিলেন। এ সময় পিংকিকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন মাইক্রোবাস চালক রিপন। বিষয়টি নিয়ে বরকত উল্লাহর সঙ্গে কথাকা’টাকাটি হয় রিপনের।একপর্যায়ে রিপনকে ছু’রিকাঘাত করেন বরকত। তাকে ঠেকাতে এসে আ’হত হন স্থানীয় ওষুধ ব্যবসায়ী হিরু আহমেদ। পরে স্থানীয় লোকজন রিপন ও হিরুকে উ’দ্ধার করে হাসপাতা’লে নিলে রিপনকে মৃ’ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। আ’হত হিরুকে হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন বরকতকে আ’ট’ক করে গণপি’টুনি দেয়। পরে পু’লিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আ’ট’ক করে থা’নায় নিয়ে যায়। প্রকাশ্যে হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনায় স্থানীয় লোকজন তাৎক্ষণিক সড়ক অবরোধ করে বি’ক্ষোভ করেন। সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বাঘারপাড়া বাজারে মিছিলও করে স্থানীয় জনতা।বাঘারপাড়া থা’না পু’লিশের ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) সৈয়দ আল মামুন বলেন, স্ত্রী’কে উ’ত্ত্যক্ত করার সূত্র ধরে ছু’রিকাঘাতে এ হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় জ’ড়িত বরকত উল্লাহ খানকে আ’ট’ক করা হয়েছে। তার স্ত্রী’ও পু’লিশের হেফাজতে রয়েছে। পু’লিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।